কয়রায় দঃ বেদকাশিতে আইসিডির উদ্যোগে বাঘ বিধবাদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ

0
33

নিতিশ সানা,কয়রা প্রতিনিধি ::


কয়রা উপজেলার সর্বশেষ ইউনিয়ন একেবারে সুন্দরবন ঘেষে দক্ষিণ বেককাশি ইউনিয়ন। যাদের জীবীকা নির্বাহ করার একমাত্র উপায় সুন্দরবনের মাছ ধরে। সুন্দরবনে বাঘ তো আছেই তার উপর আবার ডাকাতের উৎপাত। এক কথায় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ। আর যদি বাঘ বিধবা হয় তাহলে তো তার উপার্জনের কেউই নেই। খুব কষ্ট করে এমনকি নদীতে মাছ ধরে কোন রকম কেয়ে না খেয়ে দিন অতিবাহিত করে। বাঘ বিধবারা ঈদ কি জিনিস সেটা ভূলে যেতে বসেছিল। ঠিক সেই মহুর্তে শহরে থাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আশিকুজ্জামান আশিক যার মন প্রাণ পড়ে থাকে গ্রামের বাঘ বিধবা, অসহায় মুন্ডা এবং কয়রার অবহেলিত মানুষের কাছে। শহরে ঈদে কাচ্চি বিরানি আর পোলাও ফেলে গ্রামে বাঘ বিধবাদের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে চলে আসে ঈদের ২ দিন আগে সন্ধ্যায় সকাল হতে না হতেই চলে যায় কয়রার দঃ বেদকাশি অসহায় বাঘ বিধবাদের কাছে। যাদের ঈদের বাজার করে দেওয়ার মতো কেই নেই।

রবিবার দুপুর ১২ টায় সুন্দরবনের পাশে চরে বসে বাধবিধবাদের স্বামীদের কথা স্বরণ করে কেঁদে কেঁদে বলে আপনার ভাববেন না যে আপনাদের দেখার কেই নেই, আমরা আপনাদের সাথে সার্বক্ষণ আছি এবং থাকব। আপনার যদি খোলা মনে সততার সাথে থাকেন এবং আমাদের দেওয়া নির্দেশনা গুলো পালন করেন তাহলে আমরা আপনাদের জন্য দীর্ঘ আয় রোজগারের একটা ব্যবস্থা করে দেব।

তিনি বলেন, আমরা কোন সমিতি বা এনজি না যে আপনাদের রক্ত চুষে চলে যাব, আমরা এই এলাকারই ছেলে, আপনাদের সন্তান বা ভাই। আইসিডির উদ্যোগে এবং স্বাধীন সমাজ কল্যাণ সংস্থার কারিগরি সহায়তায় ঈদ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে আইসিডির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আশিকুজ্জামান আমিকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি, স্বাধীন সমাজ কল্যাণ সংস্থার সভাপতি ও সমাজ সেবক আবু সাঈদ খান।

প্রধান অতিথি বলেন, আমরা ও একঝাক তরুন প্রতিজ্ঞতা বদ্ধ হয়েছি গরীব অসহায় মানুষদের স্থায়ী আয়রোজগারের ব্যবস্থা করব যাতে করে অন্যের কাছে হাত না পাততে হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, আইসিডির প্রতিষ্ঠাতাকালীন সদস্য কামাল হোসেন, শিক্ষক আযুব আলী, গোপলগঞ্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাজেদুর রহমান আকাশ। আইসিডি সদস্য মুজাহিদ,আশিক,আহসান,ফরহাদ,নুরুল্লাহ,বাদশা ও রাব্বির। স্ভাধীন সমাজ কল্যাণ সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান। সদস্য আহাদ, মফিজুল, জেনারুল, শফিকুল, সোহেল ও নাহিদ প্রমুখ। পরিশেষে দক্ষিণ বেদকাশি ইউনিয়নের ৫০ জন বাঘবিধবাদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করেন। বাঘ বিধবারা এই প্রথম ঈদ সামগ্রী পেয়ে খুশিতে হাসতে হাসতে বাড়ীতে চলে যায়।

মন্ত্যব্য সমূহ