সীমান্ত সম্মেলনের মধ্যেই লাশ হলেন বাংলাদেশি কৃষক

0
5

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার কোটপাড়া সীমান্তের জিরো লাইনের একটি ব্রিজের নিচে আব্দুল আলী ওরফে আদু (৩৫) নামে বাংলাদেশি এক কৃষকের মরদেহ দেখতে পেয়েছেন স্থানীয়রা।

শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাত ৩টার সময় এ ঘটনা ঘটে বলে জানান আমজনখোর ইউনিয়নের পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আকালু। তিনি বলেন, মৃত ব্যক্তি তার ইউনিয়নের জুগিরহার গ্রামের এজাবুল ইসলামের ছেলে।

চেয়ারম্যান জানান, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার কোটপাড়া বিওপির মেইন পিলার ৩৮৩এর ২এস এর আয়রন ব্রিজের নিকট দিয়ে ৭/৮ জন বাংলাদেশি গরু চোরাকারবারি অবৈধভাবে ভারত থেকে গরু আনতে গেলে ভারতের ১৭১ বিএসএফের সোনামতি টহল দল তাদেরকে তাড়া দেয়। এসময় বিএসএফ সদস্যরা চোরাকারবারীদের লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ করে। বিএসএফদের হাত থেকে নিজেকে বাচাতে নদীতে ঝাঁপ দেয় তারা। কিন্তু সবাই এপারে ফিরে আসলেও নিখোঁজ হয় আব্দুল আলী।

পরে শুক্রবার দুপুরে ভারতের ৬০ গজ অভ্যন্তরে আয়রন ব্রিজ এর নিকট আব্দুল আলীর লাশ ভেসে উঠে। যেহেতু গুলি করে হত্যা করা হয়নি এ কারণে বিএসএফ লাশ ফেরত প্রদানে অস্বীকৃতি জানিয়েছে।

আব্দুল আলীর ছোট ভাই জয়নাল জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর তিনি বাড়ি থেকে বের হলে আর বাড়িতে ফিরেননি। পরিবারের দাবি, তাকে বিএসএফ হত্যা করেছে।

বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি হাবিবুল হক প্রধান বলেন, এ বিষয়ে বিজিবির কাছ থেকে কোনো তথ্য জানানো হয়নি পুলিশকে।

ঠাকুরগাঁও-৫০ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল সহিদুল ইসলাম জানান, এ বিষয়টি এখনও তিনি নিশ্চিত না।

প্রসঙ্গত, ৯ দিন আগে আমজানখোর ইউনিয়নের চড়ইগেদী গ্রামের আব্দুল হকের ছেলে শরিফুল ইসলামকে গুলি করে হত্যা করে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) বড়বিল্লা সীমান্ত চৌকির সদস্যরা।

মন্ত্যব্য সমূহ