ফিরেই অল রাউন্ডারের সিংহাসন দখল সাকিবের

0
5

নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরার পরই আইসিসি ওয়ানডে অলরাউন্ডার র‍্যাংকিংয়ে রাজত্ব ফিরে পেলেন সাকিব আল হাসান। ৩৭৩ রেটিং নিয়ে র‍্যাংকিংয়ে সবার ওপরে রয়েছেন তিনি। আজ দুপুরে প্রকাশিত র‍্যাঙ্কিংয়ে বাঁহাতি অলরাউন্ডার ৩৭৩ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে আছেন সবার ওপরে।

সাকিব সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছেন দেড় বছর আগে। গত বিশ্বকাপে লর্ডসে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটিই তাঁর শেষ ওয়ানডে। অক্টোবরে নিষিদ্ধ হওয়ার পর থেকে তো মাঠের বাইরেই। এই সময়ে ওয়ানডেতে তাঁকে টপকে যেতে পারেননি আর কোনো অলরাউন্ডার। নিষেধাজ্ঞায় পড়ার আগে সাকিবের রেটিং পয়েন্ট ছিল ৩৯৪। এ বছরের মার্চে তিনটা ওয়ানডে হাতছাড়া হওয়ায় এখন সেটি নেমে এসেছে ৩৭৩–এ। তবুও তিনি আছেন তাঁর জায়গাতেই। দুইয়ে থাকা আফগান অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নবীর রেটিং পয়েন্ট ৩০১, তৃতীয় ক্রিস ওকসের ২৮১, চার নম্বরে থাকা বেন স্টোকসের রেটিং পয়েন্ট ২৭৬।

অক্টোবরের শেষ দিকে যখন আইসিসির নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েন তখন ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ের সবার উপরে ছিলেন। দীর্ঘ এক বছর পর ২৯ অক্টোবর নিষেধাজ্ঞা শেষ হয়েছে তার। ভক্তরা যখন প্রিয় তারকার মাঠে ফেরার অপেক্ষায় তার আগেই সুখবর দিলেন তিনি। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থার ওয়ানডে অলরাউন্ডার র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ পদেই বহাল আছেন সাকিব।

নিষিদ্ধ হওয়ার আগে ৩৭৩ পয়েন্ট ছিল ৩৩ বছর বয়সী এই তারকার। এক বছর পর ফিরলেন একই পয়েন্ট নিয়ে। মজার বিষয় হচ্ছে, দ্বিতীয় স্থানে থাকা মোহাম্মদ নবী তার ধারে কাছেও নেই। আফগান তারকার পয়েন্ট ৩০১। অন্যদিকে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন ইংলিশ পেস অলরাউন্ডার বেন স্টোক। ২০১৯ বিশ্বকাপ জয়ী দলের এই নায়কের মোট সংগ্রহ ২৭৬ পয়েন্ট। ২৭১ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার চতুর্থ স্থানে রয়েছেন পাকিস্তানের ইমাদ ওয়াসিম।

নিউজিল্যান্ডের কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ২৬৫, আফগানিস্তানের রশিদ খান ২৫৩ ও মিচেল স্যান্টনারের পয়েন্ট ২৫১। যথাক্রমে ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম স্থানে রয়েছেন তারা। নবম স্থানে থাকা ভারতের রবিন্দ্র জায়েদার পয়েন্ট ২৪৬। ২৩৮ পয়েন্ট নিয়ে দশম স্থানে রয়েছেন জিম্বাবুয়ের শেন উইলিয়ামস।

বিশ্ব ক্রিকেটের ইতিহাসে একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি তিন ফরম্যাটেই অলরাউন্ডার র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ পদ দখল করেছিলেন সাকিব। ২০১৯ সালে নিষিদ্ধ হওয়ার আগে টেস্ট র‌্যাংকিংয়ের তৃতীয় স্থানে ছিলেন সাকিব। অন্যদিকে টি-টোয়েন্টির তৃতীয় স্থানে থাকা অবস্থায় জুয়াড়িদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখার অপরাধে শাস্তি পেতে হয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেটের সর্বোচ্চ এই তারকাকে।

মন্ত্যব্য সমূহ